1. admin@dailysangbadpatro.com : admin :
মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ০৪:০৫ অপরাহ্ন

হাতীবান্ধায় সত্য বলায় কিশোরকে ফেসবুক লাইভে এসে লাঠিপেটা

  • আপডেট সময় : শনিবার, ৪ জুন, ২০২২
  • ৪৪ বার পঠিত

অনলাইন ডেস্ক ;লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার নওদাবাস ইউনিয়নের প্রত্যন্ত গ্রাম কেতকীবাড়িতে বখাটেপনার শিকার হয়েছে এক স্কুলছাত্র। তুচ্ছ ঘটনায় মেহেদি হাসান লিখন নামের ওই ছাত্রকে বেধড়ক লাঠিপেটা করে কয়েক বখাটে যুবক। মারধরের সেই দৃশ্য ফেসবুকে লাইভও করে আরেক বখাটে। পরে ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে যায়। এ ঘটনায় এলাকায় ক্ষোভ ও নিন্দার ঝড় উঠেছে।

ভুক্তভোগী ছাত্র মেহেদি কেতকীবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ে দশম শ্রেণিতে পড়ে। তার ওপর হামলার প্রতিবাদ এবং বখাটেদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও বিচার দাবিতে শনিবার দুপুরে বিদ্যালয়টির শিক্ষার্থীরা অর্ধবার্ষিক পরীক্ষা বর্জন করে বিদ্যালয়ের মাঠেই বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করে। এর আগে শুক্রবার বিকেলে মেহেদির বাবা রাকিব হাসান হাতীবান্ধা থানায় একটি মামলা করেন।

গত বৃহস্পতিবার বিকেলে বিদ্যালয়ের পেছনে একটি মাদ্রাসায় ডেকে নিয়ে স্কুলছাত্রকে মারধর করে বখাটেরা। পরে ফেসবুকে লাইভ দেখে স্থানীয়রা তাকে উদ্বার করে হাতীবান্ধা স্বাস্থ্য কমপ্লেপে ভর্তি করেন। ফেসবুকে প্রচারিত ভিডিওতে দেখা যায়, সিফাত ও জয় নামে দুই বখাটে স্কুলছাত্রকে মারধর করছে। একটি লাঠি ভেঙে গেলে আরেকটি দিয়ে তাকে আঘাত করছে সিফাত। চিৎকার করে বাঁচার চেষ্টা করছে স্কুলছাত্র। পুরো দৃশ্য ফেসবুকে লাইভ করছে মাহবুবুর নামে আরেক বখাটে।

জানা যায়, তুচ্ছ ঘটনায় বৃহস্পতিবার সিফাত, জয়সহ কয়েক বখাটে বিদ্যালয়ে হামলা করে শিক্ষার্থীদের মারধর করে। এ নিয়ে দুপুরে বিদ্যালয়ে সালিশ বৈঠকে বসলে স্কুলছাত্র মেহেদি ও তার কয়েক বন্ধু হামলাকারীদের নাম বলে দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বিকেলে মেহেদির ওপর হামলা চালায় বখাটেরা। বখাটে সিফাত নওদাবাস গ্রামের হাসানুর রহমানের ছেলে ও জয় একই গ্রামের হাসানুর রহমানের ছেলে।

স্কুলছাত্র মেহেদির বাবা রাকিব হাসান জানান, নির্মমভাবে তাঁর ছেলেকে মারধর করা হয়েছে। তিনি এর উপযুক্ত বিচার দাবি করেন।

মানববন্ধনে অংশ নেওয়া শিক্ষার্থীরা জানায়, তাদের সহপাঠীকে সন্ত্রাসীরা মারধর করেছে। জড়িতরা গ্রেপ্তার না হওয়া পর্যন্ত তারা পরীক্ষার হলে বসবে না। হামলার ঘটনায় বখাটেদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন কেতকীবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিজানুর রহমান।

এ ব্যাপারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রবিউল ইসলাম বলেন, ভিডিও দেখে আমরা ভুক্তভোগীর সঙ্গে যোগাযোগ করি। মামলা করার পর রাতেই পুলিশ অভিযান চালায়। শিগগির দোষীদের আইনের আওতায় আনা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২২ © দৈনিক একুশের আলো ©
Theme Customized By Theme Park BD