Welcome
আন্তর্জাতিক খেলাধুলা জাতীয়

খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ ৬ মাস বাড়লো

একুশের আলো ডেস্ক : খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ আরও ৬ মাস বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। রোববার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

এর আগে বিএনপি চেয়ারপারসনের মুক্তির মেয়াদ বাড়ানোর জন্য তার পরিবারের আবেদনের প্রেক্ষিতে আইন মন্ত্রণালয়ের মতামত পাঠানো হয়েছিল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে।

২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিশেষ আদালতের রায়ে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড নিয়ে কারাবন্দি হন সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী। তারপর নাজিমউদ্দিন রোডের সাবেক কেন্দ্রীয় কারাগারে শুরু হয় তাঁর কারাজীবন। একই বছরের ৩০ অক্টোবর রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এ মামলায় খালেদার সাজা পাঁচ বছর বাড়িয়ে ১০ বছরের আদেশ দেন বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের বেঞ্চ।

অন্যদিকে, ২০১৮ সালের ২৯ অক্টোবর জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে সাত বছরের সশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দেন আদালত। রাজধানীর নাজিমউদ্দিন রোডের পুরানো কেন্দ্রীয় কারাগারে অবস্থিত ঢাকার ৫ নম্বর অস্থায়ী বিশেষ জজ ড. মো. আখতারুজ্জামান এ রায় ঘোষণা করেন। রায়ে সাত বছরের কারাদণ্ড ছাড়াও খালেদা জিয়াকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। জরিমানা অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদন্ডাদেশ দেন আদালত।

নাজিমউদ্দিন রোডের পুরানো কেন্দ্রীয় কারাগারে এক বছরের বেশি সময় বন্দিজীবন কাটানোর পর চিকিৎসার জন্য তাঁকে নিয়ে আসা হয় রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) কেবিন ব্লকের প্রিজন সেলে।

গত বছর সারা বিশ্বে মহামারি করোনা ছড়িয়ে পড়লে শর্তসাপেক্ষে সরকার প্রধানের নির্বাহী আদেশে জামিন পান তিনি। প্রায় ২৫ মাস (কারাগার ও বিএসএমএমইউ’র প্রিজন সেল) কারাভোগের পর সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী ২০২০ সালের ২৫ মার্চ মুক্ত হন।

বিএসএমএমইউ প্রিজন সেল থেকে মুক্তির পর গুলশানে ভাড়া বাসায় অবস্থান করছেন খালেদা জিয়া। এরপর কয়েক দফায় বাড়ানো হয় তার সাজা স্থগিতের মেয়াদ।

Related posts

মুক্তিযোদ্ধারা ২০ হাজার টাকা করে ভাতা পাবেন

admin

লকডাউন প্রত্যাহারের দাবিতে পুরান ঢাকায় বিক্ষোভ

admin

সোবহান পরিবারের ৮ সদস্য এখন দুবাই

admin

Leave a Comment

Translate »