সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১
Welcome
আন্তর্জাতিক খেলাধুলা জাতীয় ব্রেকিং নিউজ

পদ্মা সেতুর পিলারে ফেরির ধাক্কা: মাস্টার-সুকানি বরখাস্ত, তদন্ত কমিটি

নিজস্ব সংবাদদাতা : নির্মাণাধীন পদ্মা সেতুর ১০ নম্বর পিলারে ফেরির ধাক্কার ঘটনায় ফেরি বীরশ্রেষ্ঠ জাহাঙ্গীরের ইনল্যান্ড মাস্টার অফিসার মো. দেলোয়ারুল ইসলাম ও হুইল সুকানি মো. আবুল কালাম আজাদকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। একই সাথে ঘটনার তদন্তে ৫ সদস্যের কমিটি গঠন করেছে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়। মঙ্গলবার এ কমিটি গঠন করা হয়।

সোমবার (৯ আগস্ট) সন্ধ্যায় মাদারীপুরের বাংলাবাজার ঘাট থেকে ছেড়ে আসা মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটগামী রো রো ফেরি ‘বীরশ্রেষ্ঠ জাহাঙ্গীরের’ ধাক্কায় পদ্মা সেতুর ১০ নম্বর পিলারের পাইল ক্যাপ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ওই স্থানে ঢালাই ভেঙে গিয়ে দুটি রডও দেখা যাচ্ছে।

পদ্মা সেতুর মূল প্রকল্প ব্যবস্থাপক দেওয়ান মোহাম্মদ আবদুল কাদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, পদ্মা সেতুর ১০ নম্বর পিলারের পাইল ক্যাপের একটি অংশ ফেরির ধাক্কায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ওই স্থানে ঢালাই ভেঙে দুটি রডও দেখা যাচ্ছে।

মাওয়া নৌ-পুলিশের অফিসার ইনচার্জ সিরাজুল কবীর জানান, বীরশ্রেষ্ঠ জাহাঙ্গীর ফেরি বাংলাবাজার ঘাট থেকে শিমুলিয়া ঘাটে আসার পথে পদ্মা সেতুর ১০ নং পিলারের সঙ্গে ধাক্কা লেগে পিলারের দক্ষিণ-পশ্চিম কোণ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। পিলারের রড বের হয়ে গেছে এবং ফেরির পিছনের অংশে ক্ষতি হয়। এ সময় ফেরিতে থাকা একটি গম ভর্তি ট্রাক দুইটি প্রাইভেট কারের ওপর উল্টে পড়ে।

ফেরির মাস্টার দেলোয়ার হোসেন জানান, পিলারে ধাক্কা লাগেনি। সামনে দিয়ে শিমুলিয়াঘাটগামী একটি ট্রলার ৪-৫ জন যাত্রী নিয়ে ফেরির সামনে দিয়ে যাচ্ছিল। যা বাঁচাতে গিয়ে ফেরির পেছনের অংশ পিলারের সঙ্গে ধাক্কা লাগে।

মুন্সিগঞ্জের সহকারী পুলিশ সুপার (ট্রাফিক) রাসেল মনির জানান, মাদারীপুরের বাংলাবাজার ঘাট থেকে যাত্রী ও যানবাহন নিয়ে মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটের দিকে আসছিল একটি ফেরি। পথে পদ্মা নদীর স্রোত কিংবা নিয়ন্ত্রণ রাখতে না পেরে পদ্মা সেতুর পিলারে ধাক্কা লাগে। এ সময় ফেরিতে থাকা ট্রাক প্রাইভেটকারের ওপর পড়ে যায়। এতে প্রাইভেটকারে থাকা কয়েকজন আহত হয়। তাদের হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে গত ২৩ জুলাই নির্মাণাধীন পদ্মা বহুমুখী সেতুর ১৭ নম্বর পিলারের সঙ্গে ‘শাহজালাল’ নামে রো রো ফেরির সংঘর্ষ হয়। এতে ফেরিটির অন্তত ২০ জন যাত্রী আহত হন। ঘটনার পরপরই ফেরির ইনচার্জ ইনল্যান্ড মাস্টার অফিসার আব্দুর রহমানকে বরখাস্ত করে বিআইডব্লিউটিসি।

ঘটনা তদন্তে ওই দিনই চার সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে বিআইডব্লিউটিসি। তাদের দাখিল করা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পিলারের সঙ্গে সংঘর্ষের পেছনে রো রো ফেরিটির ইনচার্জ মাস্টার আব্দুর রহমান খান ও সুকানির সাইফুল ইসলামের দায়িত্বহীনতা রয়েছে। ফেরি বা অন্য কোনো জলযানের সংঘর্ষ থেকে নিরাপদে রাখতে পদ্মা সেতুর পিলারগুলো রাবার দিয়ে মোড়ানোর পরামর্শও দিয়েছে ওই কমিটি।

Related posts

২৭ দিন পর করোনা মুক্ত হলেন খালেদা জিয়া

admin

মেয়রের অনুরোধে শিল্প ও বাণিজ্য মেলা বন্ধ করলেন ডিসি

admin

পাথরঘাটায় জমা জমি নিয়ে আপন দুই ভাইয়ের মধ্যে সংঘর্ষ,জখম-৪

admin

Leave a Comment

Translate »