Welcome
আন্তর্জাতিক খেলাধুলা জাতীয় বিনোদন ব্রেকিং নিউজ ভিডিও নিউজ

বরগুনায় শিক্ষক লাঞ্ছিত করার ঘটনায় প্রধান আসামী আনোয়ার গ্রেফতার

মোঃ রাব্বি পাথরঘাটা প্রতিনিধি : বরগুনা গর্জনবুনিয়া স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক মোঃ আবুল বাশারের উপর সন্ত্রাসী হামলা ও তার স্ত্রীর উপর শ্লীলতাহানীর ঘটনায় বাইন চটকি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আনোয়ার হোসেনকে গ্রেফতার করেছে বরগুনা থানা পুলিশ।

শিক্ষকের উপর এ ধরনের হামলা ও শ্লীলতাহানীর ঘটনায় আজ বৃহস্পতিবার সকালে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানাগেছে।

বরগুনা সদর থানায় দায়েরকৃত মামলা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, গর্জনবুনিয়া স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক মোঃ আবুল বাসার নামক উক্ত স্কুলে প্রধান শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দিলে একই পদে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ছিলেন মোঃ আনোয়ার হোসেন। মোঃ আবুল বাশারকে সরানোর জন্য নানাভাবে ষড়যন্ত্র করতে থাকেন আনোয়ার। স্কুলে যোগদানের প্রথম দিনই আনোয়ার হোসেন তার লাঠিয়াল বাহিনী দিয়ে হুমকি ধমকি সহ অকথ্য ভাষায় গালিগালাজসহ মারধর করেন।

আবুল বাসার যাতে উক্ত প্রতিষ্ঠানে যোগদান করতে না পারেন সেজন্য আনোয়ার হোসেন নিয়োগ বাতিলের জন্য বরগুনা জেলা ও দায়রা জজ আদালতে মামলা দায়ের করেন। পরে মামলা খারিজ হলে আনোয়ার আরো ক্ষিপ্ত হন।

৬-জুলাই প্রধান শিক্ষক আবুল বাসার তার শিক্ষা প্রতিষ্ঠন গর্জনবুনিয়া স্কুল এন্ড কলেজে আসার পথে আনোয়ার বাহিনী তার গতিপথ রোধ করে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে। পরে তিনি ৯৯৯ কল দিয়ে পুলিশের সহায়তায় বাড়ি ফেরেন।

অপরদিকে ৭ জুলাই যথারীতি গর্জনবুনিয়া স্কুল এন্ড কলেজে আসলে বেলা ১১টার দিকে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে আনোয়ার বাহিনী দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে পুনরায় পথরোধ করে।

সেখানে প্রধান শিক্ষক আবুল বাসার ও তার স্ত্রী মেহেরুননেছাকে তার বাহীনি বেদম মারধর করেন।

হামলাকারীরা মেহেরুন নেছার কাপড় চোপর খুলে ফেলে শ্লীলতাহানী ঘটায়। এসময় হামলাকারীরা মেহেরুননেছার স্বর্ণাঙ্কার ছিনিয়ে নিয়ে যায় বলে জানাযায়। এব্যাপারে ৬জনকে আসামী করে বরগুনা সদর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

যার প্রেক্ষিতে আজ বৃহস্পতিবার সকালে মোকসেদপুর বাজারে এ হামলা ও শ্লীলতাহানীর মূল হোতা আনোয়ার হোসেনকে বাবুগঞ্জ ফাঁড়ির পুলিশ গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারের সময় আনোয়ার বাহিনীর সদস্যরা আসামী ছিনিয়ে রাখার জন্যও অপচেষ্টা চালায়।

এব্যাপারে বরগুনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা একেএম তারিকুল ইসলাম বলেন, শিক্ষকদের মারধর মামলায় প্রধান আসামী আনোয়ার হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। অন্যান্য আসামিদের গ্রেফতার করার চেষ্টা চলছে।

সূত্র জানায় বর্তমানে বাইনচটকী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হিসাবে কর্মরত ছিলেন  মোঃ আনোয়ার হোসেন । সেখানে তার বিরুদ্ধে অনিয়মের বেস কিছু অভিযোগে পাওয়া গেছে। তিনি শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে নানা কৌশল অবলম্বন করে অতিরিক্ত অর্থাদায়সহ নানা মুুখি অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

তিনি স্টুডেন্ট কার্ড দেয়ার কথা বলে, প্রতি ছাত্র-ছাত্রীর কাছ থেকে ২০০ এবং উপবৃত্তির ফরম পূরণের কথা বলে ২০০ টাকা নিচ্ছে মাস্টার সাহেব। এছাড়াও সরকারি নীতিমালা ভঙ্গো করে, ফরম ফিলাপের কথা বলে ২ হাজার থেকে শুরু করে ২৫ শত টাকা পর্যন্ত হাতিয়ে নিচ্ছে বলে জানাযায়।

সরকারী নীতিমালা অনুযায়ী , বিজ্ঞান বিভাগের জন্য নিয়মিত শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ১৯৭০টাকা, ব্যবসা শিক্ষা বিভাগের ১৮৫০ টাকা ও মানবিক বিভাগে ১৮৫০টাকা। এছাড়াও ১ থেকে ৪ বিষয়ে অকৃতকার্য পরীক্ষার্থীসহ সকল প্রকার পরীক্ষার্থী যাদের ব্যবহারিক নেই তাদের জনপ্রতি ৩৫০ টাকা, যাদের ব্যবহারিক আছে জনপ্রতি ৪০০ টাকা এবং উপবৃত্তির ফরম পূরণ সম্পূর্ণ ফ্রী। কিন্তু সরকার নির্ধারিত এ নীতিমালা লঙ্ঘন করে অতিরিক্ত অর্থাদায় করছেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আনোয়ার হোসেন।

এবিষয়ে অভিভবকরা জানায়, করোনা মহামারীর কারনে এমনিতেই কোনো কাজ বাজ নেই। তার উপর আবার ছেলে-মেয়ের পরিক্ষার জন্য অতিরিক্ত অর্থ আদায় এ যেন মরার উপর খাড়ার ঘা। এছাড়াও স্কুল কমিটির সাথে তার কোনো ভালো সম্পর্ক ছিলো না।

Related posts

উত্তপ্ত নোয়াখালীর বসুরহাট, কাদের মির্জাকে উদ্দেশ্য করে গুলি, নিহত ১

admin

এ মাসেই কিছু আইপি টিভির অনুমোদন দেওয়া হবে : তথ্যমন্ত্রী

admin

চতুর্থ ধাপে ৩৪ জেলার ৫৫ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ চলছে

admin

Leave a Comment

Translate »