Welcome
আইন ও বিচার আন্তর্জাতিক খেলাধুলা জাতীয় ধর্ম ও জীবন বাংলাদেশ বিনোদন ব্রেকিং নিউজ ভিডিও নিউজ সাক্ষাৎকার

কলাপাড়া হলদিবাড়িয়া খেয়াঘাটের রাস্তাটির বেহাল দশা

এসএম আবুল হাসান নিজস্ব প্রতিবেদক : পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার ৫নং নীলগঞ্জ ইউনিয়নের দক্ষিণ হলদিবাড়িয়া খেয়া ঘাট থেকে সৈয়দপুর কমিউনিটি ক্লিনিক পর্যন্ত রাস্তাটি বেহাল অবস্থায় পড়ে আছে। এটি অত্র এলাকার খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি সড়ক।

ঢাকা-কুয়াকাটা মহাসড়কের সাথে সংযোগ স্থাপনকারী এ রাস্তাটি দিয়ে প্রতিনিয়ত অসংখ্য মোটরসাইকেল অটোরিকশা সহ বিভিন্ন ধরনের যানবাহন চলাচল করে। কিন্তু গত কয়েক বছর ধরে রাস্তাটির অবস্থা অত্যন্ত শোচনীয় হয়ে পড়ে। এটির বিভিন্ন স্থানে ভাঙ্গন ও গর্ত সৃষ্টি হওয়ায় যাতায়াতের অনুপোযোগী হয়ে পড়েছে।

গতকয়েক বছর পূর্বে রাস্তাটিতে ইট বসানো হয়েছিল। কিন্তু বহুদিন যাবত সংস্কারের কাজ না হওয়ায় রাস্তার ইট গুলো খসে পরেছে এবং কোন কোন স্থানের মাটিও ভেঙ্গে পড়ছে। অথচ এই রাস্তার পাশেই একটি বাজার স্কুল-মাদ্রাসা ও একটি কমিউনিটি ক্লিনিক রয়েছে। পার্শ্ববর্তী ডালবুগঞ্জ ইউনিয়নের শত শত মানুষ প্রতিদিন চলাচল করে। এখানকার কৃষকরা পরিবহনের অভাবে তাদের উৎপাদিত ফসলের ভালো দাম পাচ্ছে না।

জরুরি অবস্থায় রোগীদের অ্যাম্বুলেন্সে করে হাসপাতালে নেয়া সম্ভব হচ্ছে না বলে অনেক ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে এ-ই অঞ্চলের বাসিন্দাদের। এ রাস্তাটির সংস্কারের ব্যবস্থা না করা হলে অত্র এলাকার জনগণের দূর্ভোগের সীমা থাকবে না বলে জানান স্থানীয়রা। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, রাস্তার বর্তমান অবস্থা খুবই খারাপ। যেকোনো মুহুর্তে বড় ধরনের দুর্ঘটনার ঘটতে পারে এ-ই সড়কে।

এবিষয়ে স্থানীয় আঃ মজিদ ঢালী জানান, ইট বসানোর পর থেকে অদ্য পর্যন্ত কোন ধরনের সংস্কারের কাজ করা হয়নি এ রাস্তাটিতে।খেয়া ঘাটের এই রাস্তাটি দ্রুত সংস্কার করে পাকা করনের দাবি জানান তিনিসহ স্থানীয়রা।

স্থানীয় চৌকিদার মোঃ ছাবের আহমদ বলেন, ঘূর্ণিঝড় ইয়াস এর কারণে রাস্তাটি বেরীবাঁধের বাহিরে নদীর সাইটের অংশ বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।অতিরিক্ত জোয়ারের পানিতে রাস্তাটি পানির নিচে তলিয়ে যায়। ৭,৮ও ৯ নং ওয়ার্ডের

মহিলা মেম্বার মোসাঃ মাহিনুর বেগম বলেন, রাস্তাটি আমার ওয়ার্ডের গুরুত্বপূর্ণ একটি রাস্তা। এই রাস্তাটি দিয়ে আনেক মানুষ চলাচল করে। আমার দাবি রাস্তা টি দ্রুত পাকা করনের মাধ্যমে এলাকা বাসির কষ্ট দূর হয়।

এবিষয়ে স্থানীয় ৯নং ওয়ার্ডের মেম্বার মোঃ সুমন হাওলাদার বলে রাস্তাটি অতি জনগুরুত্বপূর্ণ রাস্তাটির পাশে একটি বাজার ও কমিউনিটি ক্লিনিক রয়েছে। রাস্তাটির অবস্থা খারাপ হওয়ায় এলাকার মা বোনদের অনেক ভোগান্তি শিকার হতে হচ্ছে। এলজিআরডি কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি কামনা করছি যাহাতে রাস্তা টি দ্রুত সংস্করণ করা হয়।

Related posts

সকল ব্যাংক বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত

admin

রোববার বিক্ষোভ করবে পরিবহন শ্রমিকরা

admin

আজ থেকে চলবে বাস-ট্রেন-লঞ্চ

admin

Leave a Comment

Translate »