অগাস্ট ৩, ২০২১
Welcome
জাতীয় প্রবাস সংবাদ বাংলাদেশ

আন্তর্জাতিক বাজারে টানা ৯ মাস ধরে বাড়ছে এলপিজির দাম

একুশের আলো ডেস্ক ||আন্তর্জাতিক বাজারে টানা ৯ মাস ধরে বেড়েই চলছে তরলীকৃত পেট্রোলিয়াম গ্যাস বা এলপিজির দাম। জ্বালানি বিশেষজ্ঞ ও বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বিশ্বব্যাপী শীতের প্রকোপে এলপিজির ব্যাপক চাহিদা বেড়েছে। বিপরীতে উৎপাদন বৃদ্ধি না পাওয়া এবং রিফাইন কমে যাওয়ায় দাম বাড়ার বড় কারণ মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

বলছেন, চীন, ভারতসহ এশিয়ার দেশগুলোতে পাইকারি ও খুচরা পর্যায়ে দাম বাড়ায় তার প্রভাব পড়ছে বাংলাদেশের বাজারেও।

তরলীকৃত পেট্রোলিয়াম গ্যাস বা এলপিজি। নির্মল ও সবুজ জ্বালানী হিসেবে খ্যাত এই গ্যাসের ব্যবহার বেড়েছে বিশ্বব্যাপী। বাসা বাড়ি থেকে শুরু করে বাণিজ্যিক কর্মকাণ্ডে নিরাপদ এই জ্বালানীর চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় আন্তর্জাতিক বাজারে এলপিজির দাম অনেকটা লাগামহীন। প্রতিবেশী ভারতে গত ডিসেম্বরে দুই দফা বেড়েছে এলপিজির দাম। একই সময়ে চীনেও দাম বেড়েছে অন্তত ২০ শতাংশ।

হিসাব বলছে, গত ৯ মাসের ব্যবধানে এলপিজির দাম বৃদ্ধি পেয়েছে ২৫৫ ডলার। ২০২০ সালের জুন মাসে প্রতি টনের আমদানি মূল্য বা সিপি ছিল ৩৩৬ ডলার। ধারাবাহিক ভাবে যা বেড়ে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে এসে দাড়িয়েছে প্রায় ৬শ ডলারে। যা গত ৭ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ।

বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বিশ্বব্যাপী ঠান্ডা আবহাওয়া এবং অতিরিক্ত চাহিদার কারণেই বেড়েছে এলপিজির দাম।

দেশে এখন ভোক্তা পর্যায়ে ১২ কেজির প্রতি সিলিন্ডার গ্যাস সরবরাহ করা হচ্ছে ১০৫০ টাকা থেকে ১১শ টাকায়। যা গত জুনেও ছিল ৮শ থেকে ৯শ টাকা। তবে আন্তর্জাতিক বাজারে দাম কমে এলে দ্রুত দেশের বাজারেও তা কমবে বলে জানান এই কর্মকর্তা। বাংলাদেশে এলপিজির ৯৮ শতাংশই আমদানি নির্ভর যার পুরোটা যোগান দিয়ে আসছে দেশের বেসরকারি খাত।

Related posts

করোনা মহামারিকে কেন্দ্র করে উদ্ভূত পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে : প্রধানমন্ত্রী

admin

করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ : ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২২ দশমিক ৯৪ শতাংশ

admin

জরুরি সংবাদ সম্মেলন ডেকেছেন মির্জা আব্বাস

admin

Leave a Comment

Translate »